Wellcome to National Portal
পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়
Text size A A A
Color C C C C

সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ মে ২০২৩

পার্বত্য চট্টগ্রামে তুলা চাষ বৃদ্ধি ও কৃষকদের দ্রারিদ্র্য বিমোচন প্রকল্প

০১।

প্রকল্পের নাম

:

পার্বত্য চট্টগ্রামে তুলা চাষ বৃদ্ধি ও কৃষকদের দ্রারিদ্র্য বিমোচন প্রকল্প (কোড নং ২২৪৩১০৪০০০০০০০০)

২।

প্রকল্প পরিচালকের নাম

:

জনাব জসীম উদ্দিন (উপসচিব)

৩।

বাস্তবায়নকারী সংস্থা

:

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড

৪।

প্রকল্পের বাস্তবায়নকাল

:

 জানুয়ারী’২০২০খ্রিঃ হতে ডিসেম্বর’২০২৪খ্রিঃ

৫।

প্রাক্কলিত ব্যয়

:

৪৮৪৯.২০ লক্ষ টাকা।

 ৬।

 প্রকল্পের মোট উপকারভোগীর সংখ্যা

 

৯৫৪০ বিঘা

৭।

প্রকল্প এলাকা

:

তিন পার্বত্য জেলার ২৬ উপজেলা

 ৮।

প্রকল্পের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা

:

রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলায় ২৬ টি উপজেলায় “পার্বত্য চট্টগ্রামে তুলা চাষ বৃদ্ধি ও কৃষকদের দ্রারিদ্র্য বিমোচন” শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় বর্ণিত কার্যক্রমাদি বাস্তবায়নাধীন-

১. প্রদর্শনীঃ ১২০০টি আপল্যান্ড তুলার ব্লক প্রদর্শনী, ১২০০টি আপল্যান্ড তুলার জাত প্রদর্শনী, ১৮০০টি ধান তুলা আন্তঃফসল প্রদর্শনী, ১২০০টি তুলা ভিত্তিক শস্য বিন্যাস প্রদর্শনী, ৩৬০টি উন্নত পদ্ধতিতে জুম চাষ প্রদর্শনী ও ৩০০০টি আপল্যান্ড তুলার তদারকি চাষ প্রদর্শনী ও ৬০টি শিমুল তুলা ও ট্রি কটনের চারা তৈরী ও রোপন পরবর্তী পরিচর্যা স্থাপন করা হবে।            ২. আপল্যান্ড ও পাহাড়ী তুলার বীজ উৎপাদনঃ ১৫ বিঘা আপল্যান্ড তুলার মৌল বীজ উৎপাদন, ৫ বিঘা পাহাড়ী তুলার মৌল বীজ উৎপাদন, ৭৫ বিঘা আপল্যান্ড তুলার ভিত্তি মৌল বীজ উৎপাদন, ১০ বিঘা পাহাড়ী তুলার ভিত্তি মৌল বীজ উৎপাদন, ৩৬০ বিঘা আপল্যান্ড তুলার মানঘোষিত বীজ উৎপাদন কার্যক্রম।

৩. কম্পোষ্ট সারঃ নির্বাচিত ও চুক্তিবদ্ধ কৃষকের জমিতে ২৪০টি কেচোঁ সার/ভার্মি কম্পোষ্ট তৈরী ও ৪৮০টি কম্পোষ্ট/কুইক কম্পোষ্ট তৈরী প্রদর্শনী স্থাপন করা হবে।                   

 ৯।

প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

:

প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্যঃ

পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহের কৃষকদের আয় বৃদ্ধি ও টেকসই কৃষি ব্যবস্থা প্রবর্তনে আপল্যান্ড তুলার চাষ সম্প্রসারণ।

সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যঃ

  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহে আপল্যান্ড তুলা চাষ সম্প্রসারনের মাধ্যমে টেকসই কৃষি ব্যবস্থা প্রণয়নে ধান তুলা আন্তঃফসল , পরিবেশ সম্মত একক তুলা চাষ, উন্নত জুম চাষ তথা আধুনিক মিশ্র ফসলের চাষ এবং তুলা ভিত্তিক লাভজনক শস্য বিন্যাস বাস্তবায়ন;
  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহে প্রচলিত জুম চাষ পদ্ধতির উন্নয়নের মাধ্যমে কৃষকদের আয় বৃদ্ধি দ্রারিদ্র্য বিমোচন করা;
  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহের কৃষকদের আয় বৃদ্ধি ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে আপল্যান্ড তুলার উন্নত প্রযুক্তি সম্প্রসারণের জন্য প্রদর্শনী প্লট, তদারকি তুলা চাষ, মাঠ দিবস, চাষী সমাবেশ প্রভৃতি বাস্তবায়ন করা;
  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহের তামাক চাষ এলাকায় তামাকের পরিবর্তে আপল্যান্ড তুলা চাষ প্রবর্তনের মাধ্যমে কৃষকদের স্বাস্থ্য এবং কৃষি পরিবেশের উন্নয়ন সাধন;
  • পাহাড়ী এলাকার কৃষি জমি উন্নয়ন এবং টেকসই ও পরিবেশসম্মত তুলা চাষ প্রবর্তনে ভার্মি কম্পোষ্ট/কম্পোষ্ট সার তৈরী এবং ব্যবহারে উদ্বুদ্ধকরণ;
  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহের কৃষকদের আপল্যান্ড তুলা চাষের জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধি ও উন্নয়নে লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ, কৃষক মাঠ স্কুল, এবং উদ্বুদ্ধকরণ ট্যুর বাস্তবায়ন;
  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহের তুলা চাষের কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের আপল্যান্ড তুলা চাষের জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধি লক্ষ্যে তুলা উৎপাদনকারী দেশসমূহের এবং দেশের অভ্যন্তরে প্রশিক্ষণ, স্টাডি ট্যুর, সেমি,নার, ওয়ার্কশপ আয়োজন;
  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহের কৃষকদের মাঝে আপল্যান্ড তুলার উন্নত বীজের সরবরাহ নিশ্চিতকল্পে আপল্যান্ড তুলার মৌলবীজ, ভিত্তিবীজ এবং মানঘোষিত তুলা বীজ উৎপাদন;
  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহের কৃষকদের উৎপাদিত তুলার বীজ গুণগতমান ও ন্যায্য মূল্য নিশ্চিতকল্পে জিনিং এবং বাজার ব্যবস্থা উন্নয়ন সাধন;
  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাসমূহের পাহাড়ের ঢালে এবং কৃসকদের বাড়ির আঙিনায় শিমুল তুলা ও ট্রি কটন সম্প্রসারণে চারা উৎপাদন এবং বিতরণ।

১০।

২০২১-২০২২ অর্থ বছরের বরাদ্ধ ও ব্যয় (লক্ষ টাকায়)

 

বরাদ্ধ ২০০.০০ লক্ষ টাকা ও প্রকৃত ব্যয় ১৪৬.৪০ লক্ষ টাকা

১১।

২০২১-২০২২ অর্থবছরের গৃহীত কাজের অগ্রগতির বিস্তারিত বিবরণ

 

১. আপল্যান্ড তুলার ব্লক প্রদর্শনীঃ রাঙ্গামাটি-১৩টি, খাগড়াছড়ি-১৩টি ও বান্দরবানে-১৪টি সহ মোট ৪০টি ব্লক প্রদর্শনীর বিভিন্ন কৃষিজ উপকরনসমূহ কৃষকদের সরবরাহ করা হয়েছে। বিতরকৃত বীজ বপন করা হয়েছে।

২. আপল্যান্ড তুলার জাত প্রদর্শনীঃ রাঙ্গামাটি-১৩টি, খাগড়াছড়ি-১৩টি ও বান্দরবানে-১৪টি সহ মোট ৪০টি ব্লক প্রদর্শনীর বিভিন্ন কৃষিজ উপকরনসমূহ কৃষকদের সরবরাহ করা হয়েছে। বিতরকৃত বীজ বপন করা হয়েছে।

৩. ধান তুলা আন্তঃফসল প্রদর্শনীঃ রাঙ্গামাটি-১১টি, খাগড়াছড়ি-১১টি ও বান্দরবানে-১২টি সহ মোট ৩৪টি ব্লক প্রদর্শনীর বিভিন্ন কৃষিজ উপকরনসমূহ কৃষকদের সরবরাহ করা হয়েছে। বিতরকৃত বীজ বপন করা হয়েছে।

৪. তুলা ভিত্তিক শস্য বিন্যাস প্রদর্শনীঃ রাঙ্গামাটি-১০টি, খাগড়াছড়ি-১০টি ও বান্দরবানে-১০টি সহ মোট ৩০টি ব্লক প্রদর্শনীর বিভিন্ন কৃষিজ উপকরনসমূহ কৃষকদের সরবরাহ করা হয়েছে। জমি প্রস্তুতের পর বীজ বপন করা হয়েছে।

৫. আপল্যান্ড তুলা তদারকি চাষঃ রাঙ্গামাটি-১৬টি, খাগড়াছড়ি-১৬টি ও বান্দরবানে-১৮টি সহ মোট ৫০টি ব্লক প্রদর্শনীর বিভিন্ন কৃষিজ উপকরনসমূহ কৃষকদের সরবরাহ করা হয়েছে। বিতরণকৃত পর বীজ বপন করা হয়েছে।

৬. কেচোঁ সার/ভার্মি কম্পোষ্টঃ রাঙ্গামাটি-১৬টি, খাগড়াছড়ি-১৬টি ও বান্দরবানে-১৬টি সহ মোট ৪৮টি কেচোঁ সার/ভার্মি কম্পোষ্ট সার প্রস্তুতের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

৭. কম্পোষ্ট/কুইক কম্পোষ্টঃ রাঙ্গামাটি-১৬টি, খাগড়াছড়ি-১৬টি ও বান্দরবানে-১৬টি সহ মোট ৪৮টি কম্পোষ্ট/কুইক কম্পোষ্ট সার প্রস্তুতের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

৮. সিডিবি সম্প্রসারণ কর্মী প্রশিক্ষণ, অফিস ষ্টাফ প্রশিক্ষণ, চুক্তিবদ্ধ তুলা কৃষক প্রশিক্ষণ, সাধারণ তুলা কৃষক প্রশিক্ষণ, তামাক চাষ প্রতিস্থাপন উদ্বুদ্ধকরণ কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে।

১২।

প্রকল্পে বাস্তবায়িত প্রদর্শনীর ছবি

:

১২।

প্রকল্পে বাস্তবায়িত প্রদর্শনীর ভিডিও

:

১৩।  মিডিয়া কাভারেজ